‘একটা প্রতিশ্রুতিও পূরণ করেনি বিজেপি, ২০২১-এ ফের মুখ্যমন্ত্রী দেখতে চাই দিদিকেই’, কলকাতায় এসে বললেন বিমল গুরুঙ্গ!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা মাস। তারপর এই লাগতে চলেছে ভোটের হাওয়া এরাজ্যে ।তবে কে হবে আগামী দিনে বাংলা শা’স’ক’দল সে নিয়ে রয়েছে অনেক প্রশ্ন। তবে কোনো রাজনৈতিক দল বিনাযুদ্ধে এক ইঞ্চি জমি ছাড়তে নারাজ ।বিশেষ করে বিজেপি এবার ক্ষ’ম’তা’য় আসার জন্য একেবারে ম’রি’য়া হয়ে উঠেছে । সেই মতো দিয়ে চলেছেন একের পর এক মো’ক্ষ’ম অ’স্ত্র ।

বাংলায় ক্ষমতায় আসতে গেলে বাঙালির আবেগ কে জয় করতে হবে। আর সেই আবেগকে জয় করার জন্য একের পর এক মো’ক্ষম অ’স্ত্র প্রয়োগ করছে । কিন্তু কোথাও যেন তাতেও হচ্ছেনা কোন ফল । দুর্গাপূজার সময় ষষ্ঠীর দিন বাঙালির জন্য গোটা দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী । অনেকেই মনে করেন বাঙালি আবেগকে কাজে লাগাতে এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার ।

এর পাশাপাশি রাজ্যে বিজেপির হওয়া এবং দলীয় কর্মীদের চা’ঙ্গা করতে ইতিমধ্যে আগমন ঘটেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের । বাঁকুড়া থেকে সাংবাদিকদের মাধ্যমে মমতা ব্যানার্জির উদ্দেশ্যে করেন বেশ কিছু কটাক্ষ। এবার সেই বিজেপির দলীয় কর্মী বিমল গুরুং হঠাৎ করেই গাইছেন উল্টো সুর । এদিকে বাঁকুড়াতে অমিত শাহ আর অন্য দিকে কলকাতায় বিমল গুরুং ব্যাপারটা বেশ জমে উঠেছে ।

তার মতে বিজেপি সরকার কোনো প্রতিশ্রুতি রাখেন না । মমতা ব্যানার্জি যে প্রতিশ্রুতি করে সেটা রাখতে পারেন এবং আগামী ২০২১ এর তৃতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে দেখতে চাই মমতা ব্যানার্জিকে। তার জন্য আমরা পাহাড়ের লোকেরা যথাসর্বস্ব চেষ্টা করব । এমনটাই জানিয়েছে বিমল গুরু। তবে এ ব্যাপারে পাওয়া গেছে বেশ কিছু ভিন্ন মতামত। বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার বলেছেন যে।

” যে বিমল গুরুং কে মমতা ব্যানার্জির পুলিশ হন্য হয়ে খুঁজছিলো সেই বিমল গুরুং সাংবাদিক বৈঠক করছে প্রকাশ্যে এবং তাকে প্রটেকশন দিচ্ছে সেই মমতা ব্যানার্জির পুলিশ। রাজ্যের মধ্যে এক নোংরা খেলা চলছে। পাহাড়ের মধ্যে ফের আ’গু’ন জ্বা’লা’বা’র চেষ্টা করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় “। তবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে পাওয়া গেছে স্বস্তির বার্তা । তৃণমূলের নেতা সুব্রত বক্সী জানিয়েছেন যে যদি কেউ বিজেপিকে শা’য়ে’স্তা করতে চাই তাতে আমার অ’খুশি হবার কোন কারণ নেই ।

বিমল গুরুং এর মতো অনেক মানুষ আগামী দিনে বুঝবে এবং দলে ফিরে আসবে । পাহাড়ে যে সমস্ত জিনিসের চাহিদা যেমন জল নিকাশি ব্যবস্থা জল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা এবং তাদের চাকরি এই সমস্ত চাহিদাগু’লো পূরণ করেছে মমতা ব্যানার্জি। তাই সেখানকার মানুষ তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে দেখতে চাই মমতা ব্যানার্জি কে । তবে আগামী দিনে কে হতে চলেছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী সেটা বলবে সময় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button