বাইক কিনবেন? রাজ্য সরকার আপনাকে দেবে একদম সহজে ঋণ! যেভাবে করবেন Apply!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-করোনার মতন এই ভ’য়া’বহ পরিস্থিতিতে দেশের আর্থিক অবস্থা একদম মুখ থু’ব’ড়ে পড়েছে । তার পাশাপাশি ক্রমশ প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে বেকারত্বের সংখ্যা । লকডাউনের সময় আমরা দেখেছিলাম কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘটনা । লক্ষ লক্ষ কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছিল বিভিন্ন কর্মসংস্থান থেকে এমতাবস্থায় বেকার সমাজ পড়েছিল দু’শ্চি’ন্তা’র মুখে ।

কিন্তু নতুন করে কোন চাকরির আশা এই মুহূর্তে সহজ ব্যাপার নয়। যদিও রাজ্য সরকার ইতিমধ্যে বেশ কতগুলি শূন্য পদে নিয়োগের জা’রি করেছে। কিন্তু তাতে খুব একটা ফল পাওয়া যাবে বলে মনে হয় না কারণ সেখানে শূন্য পদের সংখ্যা খুব কম।এরই পাশাপাশি সেই বেকার সমাজের প্রতি স্বস্তির বার্তা দিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে ।

নবান্নের বৈঠক এর সাথে তিনি ঘোষণা করলেন যে এই রাজ্যের প্রায় ২ লক্ষ ছেলেমেয়েদেরকে কর্মসংস্থানের জোগাড় করে দেবেন তিনি । কর্মসংস্থানের কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন যে সহজ কিস্তিতে দেওয়া হবে বাইক কেনার ঋণ ।এই ঋণ দেওয়া হবে দু লক্ষ ছেলে মেয়েকে । যার মাধ্যমে তারা শাড়ি বা অন্যান্য ছোট শিল্পের ব্যবসা সহজে করতে পারেন।

এ দিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন,”২ লক্ষ ছেলেমেয়েকে নেব। সরকারি ব্যাঙ্ককে দিয়ে হবে না। কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্ক থেকে বাইক কেনার জন্য ঋণ দেওয়া হবে তাঁদের। বাইকের পিছনে থাকবে বক্স। তাতে শাড়ি নিয়ে গেলেন বিক্রি করতে। ফল নিয়ে বিক্রি করতে পারেন। শুধু মাত্র এখানেই থেমে থাকেননি তিনি তিনি আরও একধাপ এগিয়ে গিয়ে বলেন,”এরকম ২ লক্ষ ছেলেমেয়েকে বাইক দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে সরকার। এক একটা পরিবারে ৫ জন থাকলে উপকৃত হবেন ১০ লক্ষ মানুষ।” এই ধরনের ঘটনা সামনে আশাতে রীতিমতো স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে বেকার সমাজ ।

এর আগে আমরা দেখেছিলাম মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেকার ছেলে মেয়েদের উদ্দেশ্যে কর্ম সাথী প্রকল্পের সূচনা করেছিলেন। যেখানে বলা হয়েছিল দু’লক্ষ ছেলেমেয়েদেরকে ছোটখাটো ব্যবসা করার জন্য ঋণ দেবে সরকার এবং এই ঋণের পরিমাণ ছিল দু লক্ষ টাকা। ঠিক এই ঘটনার পর এই ধরনের ঘটনা সামনে আশাতে রীতিমতো বেজায় খুশি বেকার সমাজের ছেলেমেয়েরা । এর পাশাপাশি ক্ষুদ্র এবং কুটির শিল্পের জন্য বিশেষ মেলার আয়োজন করবে রাজ্য সরকার এমনটাই আশ্বাস দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button