বাড়িতেই আটার রুটি বলের মতো ফোলানো ও দীর্ঘক্ষন নরম রাখার দারুণ সিক্রেট, রইলো পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনাদেরকে যে রেসিপির কথা বলতে চলেছি সেটি প্রত্যেক বাড়ির মহিলারা জানেন কিভাবে তৈরি করতে হয় । তাহলে আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতেই পারে যে তাহলে কেন বলছি? বলছি এই কারণে কারণ বাড়ির মধ্যে এমন অনেক মেয়ে বর্তমান যুগে রয়েছে যারা নতুন ধরনের রান্না শিখতে চান বা রান্নার হাতেখড়ি করতে চান। তাদের জন্য আজকের এই প্রতিবেদনটি।

আমরা হয়তো অনেকেই অনেক ধরনের রান্না করে থাকি কিন্তু যারা একদম প্রথম রান্না করছেন তাদের জন্য কোন নির্দিষ্ট প্লাটফর্ম নেই যেখানে তারা সেই ধরনের রান্না শিখতে পারবে ইউটিউব সেই সমস্ত মানুষদের জন্য এক নতুন পথ খুলে দিয়েছে । এমনটা বলা যেতে পারে । কত আর বাড়ির মাকে জিজ্ঞেস করে করে রান্না করবেন তার থেকে ভালো ইউটিউবে এই ভিডিওগু-লি দেখে আপনি অনায়াসে শিখে যেতে পারেন কিভাবে তৈরি করতে হয় রান্না ।তাই আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানাব কিভাবে গমের আটার রুটি করতে হয় ।

অনেকে রটি করেন ঠিক কথা কিন্তু সেগুলো ফুলকো হয় না ।আজকে বলবো সঠিক কোন পদ্ধতি অবলম্বন করলে রুটি এবং ফুলকো হবে আসুন দেখেনি সেই পদ্ধতিটি। গমের আটার রুটি তো আমরা সবাই বানিয়ে থাকি কিন্তু সেই রুটি ভালো করে অনেক সময় ই ফোলেনা। রুটি ফোলানো এবং অনেকক্ষণ নরম রাখার রেসিপি হলো । প্রথমে আটা নিয়ে তাতে স্বাদ মতো নুন আর গরম জল দিয়ে ভালো করে মেখে নিতে হবে । মাখা ডো টা কে ৪০ মিনিট মতো ঢেকে রাখতে হবে । এরপর আটা থেকে ছোট ছোট লেচি কে-টে নিতে হবে ।

এরপর লেচি গুলো কে ভালো করে বেলে নিতে হবে । এরপর চাটু গরম করে রুটি গুলোর দুদিক ভালো করে সেকে নিতে হবে । তারপর রুটি গুলো কে আ-গুনে ভালো করে সেকে নিলেই রুটি গুলো ফুলে উঠবে ।অনেকের রুটি ফুলকো হয় না । তার কারণ আটা মাখার সময় তারা ঠাণ্ডা জল ব্যবহার করেন । কিন্তু এটি একটি ভুল পদ্ধতি ।আটা যখন আপনি মাখবেন তখন উষ্ণ গরম জল ব্যবহার করতে হবে ।তার পাশাপাশি আটা মাখা সাথে সাথেই রুটি করা উচিত নয় ।সেটিকে কিছুক্ষণ রেখে দেওয়া উচিত ।এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে আপনি অবশ্যই বাড়িতে ফুলকো আটার রুটি তৈরি করতে পারবেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button