এখন পরিবার নিয়ে দীঘা ঘুরতে যাবেন বলে ভাবছেন? সা’ব’ধান! পড়তে পারেন সমস্যায়! রইলো ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা অনেকেই ভ্রমণ পিপাসু হয়ে থাকি অর্থাৎ বছরে কোন একটি সময় দেখব ত বেরিয়ে পড়ি ভ্রমণের উদ্দেশ্যে। কখনো পাহাড় তো কখনো সমুদ্র আমাদের আকৃষ্ট করে থাকে। তবে সমুদ্রের কথা বলতে গেলে প্রথমেই যে জায়গার কথা মাথায় আছে সেটি হল দীঘা।

একা হোক বা পরিবারের সাথে হোক বা বন্ধুবান্ধবের সাথে হোক কম খরচের মধ্যে সমুদ্র সৈকত দর্শন করার উপযুক্ত জায়গা হল দীঘা । কিন্তু সেই দিঘাতে জারি করা হয়েছে সম্প্রতি বেশ কিছু নিয়ম। যেটি না জানলে আপনি পড়তে পারেন সেখানে গিয়ে বি-প-দে আসুন দেখে নেওয়া যাক সেগুলি কি ।

আপনি যদি দিঘাতে প্লাস্টিকের ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনার বি-প-দ ঘ-নি-য়ে আসতে চলেছে । কারণ দিখাকে প্লাস্টিক মুক্ত করার জন্য প্রশাসন ইতিমধ্যে সর্ত-কতা জারি করেছে। কাজেই আপনি যদি কোন দোকানদারের কাছ থেকে প্লাস্টিক চান বা প্লাস্টিক ব্যবহার করেন তাহলে আপনার বি-রু-দ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে।

দীঘা স্টেশনে নামলে আপনাদেরকে একদল মানুষ থেকে ধরবে । কম টাকায় সবথেকে ভালো হোটেল পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখাবে তারা । কিন্তু আদতে দেখা যাবে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ বেশি টাকা লে-গে যাচ্ছে সেই সমস্ত হোটেল বুক করতে গেলে যা তাদের পকেট এ ঢুকেছে। কাজেই সেই সমস্ত ব্যক্তিদের থেকে দূরে থাকুন।

অনেকেই দীঘা ঘুরতে গিয়ে ম-দ্য-প অবস্থায় সমুদ্রে স্নান করতে চলে যান । ফলে একাধিকবার দুর্ঘ-টনার শি-কা-র হয়েছে অনেকে । সেই সমস্ত কথা মাথায় রেখে দীঘা প্রশাসন নিয়েছে বেশকিছু পদক্ষেপ । যেমন ম-দ্য-প অবস্থায় সমুদ্রে স্নান করতে যাওয়া যাবে না । এর পাশাপাশি বি-প-দ-সী-মা অতিক্রম করলেই আপনি হতে পারেন গ্রে-প্তা-র।

দীঘার সমুদ্রে ঘুরতে গিয়ে অনেকেই মাছ ভাজা খেয়ে থাকেন ।আকর্ষণীয় হয়ে থাকে সেই জায়গার মাছগুলি ।তবে কোথাও কি আপনি এই মাছ ভাজার মাধ্যমে শরীরের বি-ষ ঢোকাচ্ছেন না তো ? কারণ এ মনটা অভি-যোগ উঠেছিল কিছুদিন আগে যে অসাধু ব্যবসায়ীরা মাছ ভাজার আগে এবং পরে বিভিন্ন ক্ষ-তিকর রঙের ব্যবহার করে থাকে যেগুলো শরীরে অত্যধিক পরিমাণে ক্ষ-তি করে । সেই সমস্ত জিনিস গুলো মাথায় রেখে চলুন। উপরিক্ত কথাগুলি অবশ্যই মাথা রেখে তবেই ঘুরতে যান দীঘা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button