হিরো হওয়ার যাবতীয় উপাদান থাকলেও কেন ইন্ডাস্ট্রি থেকে হারিয়ে যান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়? জানুন আসল কারণ!

নিজস্ব প্রতিবেদন:বাংলা চলচ্চিত্র জগতের প্রথম সারির অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। 1986 সালে পথভোলা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্রথমবার অভিনয় জগতে পদার্পণ করেছিলেন তিনি। এরপর বহু হিট ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাকে। তবে ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই বলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে তার ডুয়েল লড়াই ছিল।

যদিও টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে তারা ভালো বন্ধু বলেই পরিচিত ছিলেন। সম্প্রতি অভিষেকের মৃত্যুতে অত্যন্ত দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এমনকি তিনি জানিয়েছিলেন তিনি বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন। কিন্তু নেটিজেনদের একাংশ বিশ্বাস করেন প্রসেনজিৎ এবং অপর এক অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর ভয়ঙ্কর রাজনীতির শিকার হয়েছিলেন অভিষেক।

প্রসঙ্গত সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল অভিষেকের একটি সাক্ষাৎকারে ইন্ডাস্ট্রির কিছু মানুষের উপর তাকে আঙ্গুল তুলতে দেখা যাচ্ছে। যদিও তিনি স্পষ্ট করে কিছু উল্লেখ বলেননি।

তবে নেটিজেনদের একাংশের দাবি যে ওই সাক্ষাৎকারে প্রসেনজিৎ এবং ঋতুপর্ণার কথাই আকার ইঙ্গিতে বুঝিয়েছিলেন অভিষেক। টিউবলাইট নিউজ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে। চাইলে আপনারাও এই ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কয়েকদিন আগেই প্রয়াত হয়েছেন অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল 57 বছর। শুটিং করতে গিয়েই আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি।সহকর্মীরা তাকে হাসপাতালে ভর্তির কথা বললেও তিনি তা না শুনে বাড়ীতেই ফিরে এসেছিলেন।

এরপর গভীর রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়। অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের অভিনীত একাধিক ছবিগুলির মধ্যে রয়েছে মা, ওরা চারজন, মায়ার বাঁধন, প্রেম সংঘাত, নয়নের আলো, আমি যে তোমার, চোরাবালি, রাজমহল, আলো, দাদার আদেশ, ঘর জামাই, সবুজ সাথী প্রভৃতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button